Monday , November 30 2020
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
Home / সফলতার গল্প / জয়পুরহাটের সফল শিল্প উদ্যোক্তা ইমুর সফলতার গল্প

জয়পুরহাটের সফল শিল্প উদ্যোক্তা ইমুর সফলতার গল্প

 

যুব সমাজই পারে অসম্ভবকে সম্ভাবনার বাস্তবতা দিয়ে জয় করে নিতে,তেমনই একজন আধুনিক চিন্তা চেতনার সফল  শিল্প উদ্যোক্তা জয়পুরহাটের কৃতি সন্তান রোটারিয়ান মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু।কোয়ালিটি, কমিটমেন্ট এবং মানসম্মত সার্ভিসের কারনেই খুব অল্প সময়েই গ্রাহকের আস্থা অর্জন করে আজ স্বমহিমায় প্রতিষ্ঠিত খান রেডিমিক্স লিমিটেড ।প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক হলেন রোটারিয়ান মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু।

তিনি ১৯৭৭ সালে জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন।তার পিতা আলহাজ মোঃ ফজলুল হক চৌধুরী এবং মমতাময়ী মা মোসলেমা চৌধুরী।

তিনি পাঁচবিবি এল বি পি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক এবং পাঁচবিবি মহিপুর সরকারি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন।বগুড়া সরকারী আজিজুল হক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করে।এশিয়ান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মার্কেটিং এ এমবিএ ডিগ্রী অর্জন করেন।

ছাত্রজীবন শেষ করে তিনি দেশখ্যাত কনকর্ড গ্রুপে প্রায় ৮ বছর চাকরি করেন এবং ব্যবসা বান্ধব অভিজ্ঞতা অর্জন করেন। নিজে উদ্যোক্তা হবার প্রবল ইচ্ছা থেকেই চাকরি ছেড়ে দিয়ে ব্যবসা শুরু করেন এবং তিনি খুব অল্প সময়ে সফলও হন।

ব্যবসা বাণিজ্যের পাশাপাশি তিনি শিক্ষাক্ষেত্রেও রাখছেন অবদান।তার নিজ এলাকা পাঁচবিবিতে প্রতিষ্ঠিত করেছেন প্রত্যাশা চাইল্ড কেয়ার হেভেন কেজি স্কুল।এছাড়াও তিনি সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন।

তিনি বন্ধু কল্যাণ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা,রোটারি ক্লাব অব ঢাকা অর্কিড এর নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।বাংলাদেশ মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট,জয়পুরহাট জেলা সমিতির আজীবন সদস্য,দুঃস্থ কল্যাণ সংস্থা পাঁচবিবি ডিকেএসপির উপদেষ্টা।অর্জন করেছেন পাঁচবিবি স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার থেকে কৃতিসন্তান সম্মাননা পদক।

সম্প্রতি এই সফল উদ্যোক্তার মুখোমুখি হয় জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর।তিনি সম্পাদক রবিউল ইসলাম রিমন  এর সাথে দীর্ঘ আলাপে নানা বিষয়ে কথা বলেন তা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর-আপনার চাকরি জীবনের শুরুর গল্পটা যদি বলতেন –

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু- আমি শিক্ষাজীবন শেষে শুরতেই মাত্র ৬ হাজার টাকা বেতনে টিআরএম গ্রুপে জয়েন করি।এত অল্প টাকায় এমনও দিন গেছে যে দুপুরে সিঙ্গারা,সামুচা খেয়ে থাকতে হয়েছে।এরপর এক কাজিনের অফিসে চাকরির ভাইভা দিতে গেলে তিনি আমার উদ্যোক্তা হবার ইচ্ছার কথা শুনে হেসেই উরে দেন।সেই থেকে জেদ চাপে যে যেভাবেই হোক আমি প্রতিষ্ঠিত হব।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর-খান রেডিমিক্স লিমিটেড  প্রতিষ্ঠার শুরুর গল্পটা যদি বলতেন

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু- খান রেডিমিক্স লিমিটেড আজ থেকে তিন বছর আগে শুরু করি।শুরুর পিছনে অনেক দুঃখ বেদনা জড়িত।এখন খান রেডিমিক্স লিমিটেড বাংলাদেশে যতগুলো রেডিমিক্স ইন্ডাস্ট্রিজ কম্পিটিটর আছে যেমন আবুল খয়ের,আকিজ,মির কনকর্ড, এবিসি ইত্যাদি এদের মধ্যে বর্তমানে অল্প সময়ে খান খান রেডিমিক্স বেশ সুনাম অর্জন করেছে।আগামী দুই বছরের মধ্যে বেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাবেবর্তমানে আমাদের  প্রতিষ্ঠানই ভালো পর্যায়ে আছে।আশা করি ভবিষ্যতে আরও ভালো পর্যায়ে যাবে ইনশআল্লাহ।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর-বর্তমান কোম্পানির অবস্থা যদি বলেন…

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু- খান রেডিমিক্স লিমিটেড এর কথা যদি বলি প্রথমত আমরা কাজ করছি সিটি কর্পোরেশনের রাস্তাঘাটের উন্নয়নের কাজ,ফুটপাত,দ্বিতীয়ত টেক্সটাইলের কাজ,তৃতীয়ত কর্পোরেট রিয়েল এস্টেট কোম্পানির কাজ চলছে।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর-মানুষ পড়ালেখা শেষ করে চাকরির পেছনে ছোটে কিন্তু আপনি তা না করে উদ্যোক্তা হতে চাইলেন কেন?

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু-আমার ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন ছিল একজন ভালো শিল্প উদ্যোক্তা হওয়ার।আমি যখন ক্লাস সেভেনে পড়ি তখন আমার গ্রামের বাড়ির ঘড়ের একটা রুম ছেড়ে দিয়েছিল আমি যেন একটি দোকান দিতে পারি আর আমার জীবনের প্রথম ব্যবসা শুরু ছিল ওই রুম থেকেই।সেখানে আমি একটি মুদি দোকান করেছিলাম কারন আমি যখন স্কুলে পড়ি তখন ভাবতাম কিছু একটা করবো।

এসএসসি,এইচএসসি,অনার্স,মাস্টার্স শেষ করলাম।আমি একাউন্টিং এর ছাত্র হয়েও ওই রিলেটেড জব করিনি।পরে এমবিএ করলাম মার্কেটিং বিষয়ের উপর।তখন আমার মনে হল এমন একটা কিছু করতে যাতে মানুষের কর্মসংস্থান ও পরিবারের ভরনপোষণের সুযোগ সৃষ্টি হয়।বর্তমানে আল্লাহর রহমতে আমার দুটি প্রতিষ্ঠানে প্রায় ১৫০০ মানুষ কাজ করছে।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর- ব্যবসার ক্ষেত্রে কখনো বাঁধার সম্মুখীন হয়েছেন কি? হলেও সেটা কি ধরনের?

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু-দেশের যে প্রেক্ষাপট সেটা বিবেচনায় নিয়ে যদি বলি তাহলে একবারে যে বাঁধার সম্মুখীন হয়নি তা নয়।আসলে উদ্যোক্তা হতে গেলে অনেক বাঁধাই আসে কিন্তু একজন উদ্যোক্তা হতে গেলে সবগুলো বিষয় বিশ্লেষণ করে এগিয়ে যেতে হয়। ভালো পরিকল্পনা একটি কোম্পানির জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ এছাড়া বিনিয়োগ তো রয়েছেই।তবে শুধু টাকা দিলেই ভালো উদ্যোক্তা হওয়া যাবে না,এর জন্য প্রথমেই দরকার ভালো পরিকল্পনা কারন ভালো পরিকল্পনা হলেই যে কোন বাঁধা অতিক্রম করা যাবে।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর-এই সেক্টরে বর্তমানে কি ধরনের সমস্যা রয়েছে বলে আপনি মনে করেন?

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু-এই সেক্টরে যদি সরকার পৃষ্ঠপোষকতা করে তাহলে এগিয়ে নেয়া সম্ভব।তাছাড়া এর ভবিষ্যৎ অনেক উজ্জল।বর্তমানে গাজী কংক্রিট ইটের পরিবর্তে পরিবেশবান্ধব ব্লক বানাচ্ছে।যা পরিবেশের কোন ক্ষতি করেনা। এদিকে ইটের কারনে আমাদের দেশের টপ সয়েলটা নষ্ট হচ্ছে।পাশাপাশি প্রচুর গাছ কাটতে হয় ইট পোরানোর জন্য যা পরিবেশের ক্ষতি হয় কিন্তু ব্লক সেদিক থেকে একেবারেই আলাদা। এটা সম্পূর্ণ গ্রিন প্রোডাক্ট। বর্তমান সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে আগামী ২০২২ সালের মধ্যে দেশের সকল ইটভাটা বন্ধ থাকবে।আর এতে ব্লকের বিশাল বাজার তৈরি হবে বলে আমার বিশ্বাস।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর-খান রেডিমিক্স লিমিটেড  নিয়ে আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ও স্বপ্ন কি?

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু-একজন প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হিসেবে আমি বলবো আমি চাই এই প্রতিষ্ঠান দেশের সবচেয়ে বড় ইন্ডাস্ট্রি হয় যাতে করে লক্ষাধিক মানুষের কর্মসংস্থান আমি করতে পারি। পাশাপাশি দেশ ও দশের কল্যাণে বাকী জীবনটা কাটাতে চাই এটাই আমার স্বপ্ন।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর-জয়পুরহাটের মানুষদের উদ্দেশ্য করে কিছু বলুন..

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু-আমার প্রিয় জন্মভূমি জয়পুরহাটের মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পারলে নিজেকে ধন্য মনে করব।আমি আমার অবস্থান থেকে যতটুকু সাধ্য আছে তা দিয়ে জয়পুরহাটের মানুষদের কল্যাণে কাজ করতে চাই।

***জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর- সময় দেয়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

**ইমরান হোসেন চৌধুরী ইমু-জয়পুরহাট নিউজ টুয়েন্টিফোর ফ্যামিলিকেও অশেষ কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা।

About Joypur Hat

Check Also

মানবসেবায় জয়পুরহাটের শরিয়তের ‘আমার আস্থা’

‘আস্থা রাখুন আমার আস্থায়’—এই স্লোগান নিয়ে দেশের মানুষের সর্বোচ্চ আস্থা অর্জনের লক্ষ্যে ২০১৮ সালে যাত্রা …